অনার্স ভর্তি প্রথম মেধা তালিকা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০- ২১ সেশনের অনার্স ভর্তি প্রথম মেধা তালিকা।

২০২০-২১ শিক্ষা বর্ষের অনার্স ভর্তির প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশ হবে ১লা সেপ্টেম্বর ২০২১। ক্লাশ শুরু হবে ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১। ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য আমাদের ওয়েবসাইট ক্যাম্পাসটাইমস বিডি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের পাশাপাশি প্রকাশ করে থাকে। আপনি প্রথম মেধা তালিকা তালিকায় সুযোগ পেয়ে থাকলে এই নিবন্ধনটি পড়ুন।

 

প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশ সংক্রান্ত জরুরী তথ্য

  • ফলাফল প্রকাশঃ ০১লা সেপ্টেম্বর ২০২১।
  • ভর্তি ফরম ডাউনলোডঃ ০১ সেপ্টেম্বর থেকে ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১।
  • ভর্তি শুরুঃ ০২ সেপ্টেম্বর থেকে ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১।

প্রথম মেধা তালিকার ফলাফল দেখবেন যেভাবেঃ

আপনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তির প্রথম মেধা তালিকা দু’ভাবে দেখতে পারেন।

  1. অনলাইনে রোল এবং পিন দিয়ে লগিন করে।
  2. এসএমএস-এর মাধ্যমে।

বি.দ্র. – জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় চান্স প্রাপ্তদের মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দেয়। তবে নেটওয়ার্ক বা সার্ভার সমস্যার কারনে সবার কাছে নাও যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে আপনাকে লগিন করে ফলাফল দেখা উত্তম।

 

এসএমএস এর মাধ্যমে ফলাফল দেখবেন যেভাবেঃ

NU <space> ATHN <space> ROLL NO টাইপ করে 16222 নম্বরে send করতে হবে।

যেমনঃ NU ATHN 1234567 and send 16222

এখানে,

NU = National University, AT = Admission Test, HN = Honours, ROLL NO = Admission Roll

 

 

অনলাইনে যেভাবে ফলাফল দেখবেন – http://admission.nu.edu.bd

অনলাইনে ফলাফল দেখতে আপনাকে Honours Applicants Login প্রবেশ করে এডমিটে থাকা রোল এবং পিন দিয়ে লগিন করতে হবে। নিচের ছবিতে লক্ষ্য করুন কেমন করে লগিন করবেন।

অনলাইনে অনার্স ভর্তি ফলাফল দেখুন

 

 

যদি Congratulations…. দিয়ে শুরু হয় আপনি আপনার আবেদনকৃত কলেজে চান্স পেয়েছেন। আর যদি Sorry… দিয়ে শুরু হয় আপনি চান্স পাননি। এক্ষেত্রে আপনাকে দ্বিতীয় মেধা তালিকার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

প্রথম মেধা তালিকায় চান্স পেয়ে ভর্তি না হলে করণীয়ঃ

আপনি প্রথম মেধা তালিকায় চান্স বা সুযোগ পেয়েও বিষয় পছন্দ না হলে বা ভর্তি না হলে, আপনাকে রিলিজ স্লিপে ছাড়া ভর্তির উপায় নেই। অর্থাৎ আপনি প্রথম মেধা তালিকায় সুযোগ পেয়ে ভর্তি না হলে দ্বিতীয় মেধা তালিকায় আপনি মনোনীত হবেন না। আপনাকে সিল খালি থাকা সাপেক্ষে প্রথম বা দ্বিতীয় রিলিজে আবেদন করে সুযোগ পেয়ে ভর্তি হতে হবে।

 

প্রথম মেধা তালিকায় বিষয় পছন্দ না হলে করণীয়ঃ

আপনার প্রথম মেধা তালিকার প্রাপ্ত বিষয় পছন্দ না হলে মাইগ্রেশন করতে পারবেন। ভর্তি ফ্রম পূরণের সময় মাইগ্রেশন ‘ইয়েস’ করে সাবমিট করতে হবে। মনে করুন আপনার বিষয় পছন্দের তালিকা যথাক্রমে ১. ইংরেজি, ২. বাংলা, ৩. গণিত, ৪. রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ৫. রসায়ন…….। এখন, আপনি ১ নং বিষয় ইংরেজি পেয়ে থাকলে মাইগ্রেশন করে কাজ হবে না। কারন মাইগ্রেশন উপরের বিষয়ে সুযোগ দিয়ে থাকে নিচের বিষয় নয়। আবার আপনি ১ নং ইংরেজি বাদে নিচের যে কোন বিষয় পেলেন অর্থাৎ ৩ নং বিষয় গণিত পেলেন, এক্ষেত্রে আপনি মাইগ্রেশন করতে পারবেন এবং সিট খালি থাকা সাপেক্ষে উপরের ২ নং বিষয় বাংলা বা ১ নং ইংরেজি পেতে পারেন।

 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় যেভাবে ফলাফল ও মেধা তালিকা প্রনয়ণ করেঃ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় যেভাবে ফলাফল ও মেধা তালিকা প্রকাশ করে থাকে তার একটি স্থিরচিত্র দেখানো হলো। উক্ত চিত্রটি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তির বিজ্ঞপ্তি থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।

রোল বা পিন বা রোল এবং পিন ভুলে গেলে করণীয়ঃ

আপনার অনার্স ভর্তির রোল/পিন বা রোল এবং পিন ভুলে গেলে খুব সহজে রিকোভার বা পুনরুদ্ধার করতে পারবেন। সেজন্য আপনাকে এখানে Roll or Pin Recover প্রবেশ করে যাবতীয় সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করে সার্চ বাটনে ক্লিক করলে আপনার রোল এবং পিন স্ক্রীনে প্রদর্শিত হবে।

 

আপনার অনার্স ভর্তির রোল/পিন বা রোল এবং পিন ভুলে গেলে খুব সহজে রিকোভার বা পুনরুদ্ধার করতে পারবেন। সেজন্য আপনাকে এখানে Roll or Pin Recover প্রবেশ করে যাবতীয় সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করে সার্চ বাটনে ক্লিক করলে আপনার রোল এবং পিন স্ক্রীনে প্রদর্শিত হবে।

 

প্রথম মেধা তালিকায় চান্স না পেলে করণীয়ঃ

আপনি প্রথম মেধা তালিকায় চান্স না পেলে হতাশ হওয়ার কিছুই নেই। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম মেধা তালিকা ভর্তি সম্পন্ন করার পরে, আসন খালি থাকা সাপেক্ষে দ্বিতীয় মেধা তালিকা প্রকাশ করবে। এজন্য আপনাকে নতুন করে আবেদন করার দরকার নেই। প্রথম মেধা তালিকার মত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পদ্ধতি অনুযায়ী দ্বিতীয় মেধা তালিকা প্রকাশ করবে।

 

প্রথম মেধা তালিকায় / জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তি হতে কত টাকা লাগবেঃ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সরকারি ও বেসরকারি দু’ধরণের কলেজ রয়েছে। সাধারণত সরকারি কলেজে ৪,০০০ – ৫,০০০ টাকা লাগতে পারে। বেসরকারি কলেজ হলে প্রায় ১০০০০ টাকা লাগতে পারে। আপনি চান্স পেলে প্রথমেই আপনার চান্সকৃত কলেজের নোটিশ বোর্ড দেখবেন। অধিকাংশ কলেজ বর্তমানে অনলাইনে নোটিশ প্রদান করে। আপনি সে নোটিশেও দেখতে পারবেন কত টাকা লাগবে। অর্থাৎ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় মেধা তালিকা প্রকাশের পরেই, আপনার কাজ হবে কলেজের নোটিশ দেখা।

 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ভর্তির জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবেঃ

  • প্রথম মেধা তালিকার নিদির্ষ্ট তারিখের মধ্যে অনলাইনে চূড়ান্ত ভর্তির ফরম পূরণ করে প্রিন্ট করে নিতে হবে।
  • এবং ফি-সহ অন্যান্য কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দিতে হবে।
  •  অনলাইন থেকে A4 অফসেট সাদা কাগজে কালার প্রিন্টকৃত মূল আবেদন ফরম। [সাধারণত দুটি কপি থাকে; কলেজ কপি এবং স্টুডেন্ট কপি]
  • প্রাথমিক আবেদনের ফরম বা প্রবেশপত্র যা প্রাথমিক আবেদনের পরে কলেজ একটি কপি ফেরত দিয়েছে।
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি  এবং স্ট্যাম্প সাইজের ছবি পিছনে নাম, রোল এবং ফোন নং লিখে। [কত কপি তা কলেজের নোটিশ দেখুন]
  • এসএসসি ও এইচএসসি এর সনদপত্র। [এটি কোন কোন কলেজ চাইতে পারে আবার কোন কোন কলেজ না চাইতে পারে।]
  • এসএসসি এবং এইচএসসি-এর প্রশংসা পত্রের ফটোকপি।
  • এসএসসি ও এইচএসসি মূল নম্বরপত্র। [ফটোকপি চাইলে ফটোকপি দিবেন। অনেক কলেজ এসএসসি-এর মার্কসিট অর্জিনাল জমা রাখে।]
  • এসএসসি ও এইচএসসি রেজিস্ট্রেশন কার্ডের ফটোকপি।
  • টাকা জমাদানের রশিদ বই। [তবে অনলাইনে জমা দিলে তার ডকুমেন্টস দেখাতে হবে]
  • ভর্তি ফি কলেজভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে, তাই সংশ্লিষ্ট কলেজ থেকে জেনে নেওয়াই ভালো।

 

উল্লেখ্য, কাগজপত্র কত কপি করে কলেজে জমা দিতে হবে, তা আপনার ভর্তি ইচ্ছুক কলেজের নিয়ম অনুযায়ী করতে হবে। এছাড়া আপনার কলেজ সত্যায়িত করে জমা দেওয়ার কথা বললে সত্যায়িত করে জমা দিবেন

আরও পড়ুনঃ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পরিবর্তন পদ্ধতি

 

অনার্স ভর্তি ফলাফল ও মেধা তালিকা পদ্ধতিঃ

  • ক) প্রতিটি কলেজের জন্য আলাদাভাবে মেধা তালিকা তৈরী করে আবেদনকারীদের পছন্দক্রম অনুযায়ী ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেনির বিষয় বরাদ্দ দেয়া হবে।
  • খ) একই প্রতিষ্ঠান/কলেজে একই বিষয়ে দুই বা ততোধিক আবেদনকারীর মেধাক্রম একই হলে সেক্ষেত্রে এ সকল আবেদনকারীর পর্যায়ক্রমে
  • i) ৪র্থ বিষয়সহ SSC ও HSC পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ এর যথাক্রমে ৪০% ও ৬০%
  • ii) প্রয়োজন হলে SSC ও HSC পরীক্ষার মোট প্রাপ্ত নম্বরের যথাক্রমে ৪০% ও ৬০%
  • iii) এর পরেও যদি দুই বা ততোধিক আবেদনকারীর প্রাপ্ত ফলাফল একই হয়, তা হলে যার বয়স কম হবে তাকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে (অনুচ্ছেদ-৭ এ বর্ণিত মেধাক্রম প্রণয়ন পদ্ধতি অনুযায়ী)।
  • গ) এ ভর্তি কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে প্রথম মেধা তালিকা, শূন্য আসন সাপেক্ষে দ্বিতীয় মেধা তালিকা, বিশেষ কোটা এবং রিলিজ স্লিপ (প্রয়োজনে একাধিক বার) এর মাধ্যমে সম্পন্ন করা হবে।
  • ঘ) সংশ্লিষ্ট কলেজ User ID, Password ও OTP ব্যবহার করে ভর্তির বিষয় ভিত্তিক ফলাফল দেখতে পারবে।
  • আবেদনকারীরা ভর্তি সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট (www.nu.ac.bd/admissions) এবং SMS (nu<space>athn<space>roll no টাইপ করে 16222 নম্বরে send করতে হবে) এর মাধ্যমে অথবা কলেজ থেকে ফলাফল জানতে পারবে।

 

 

মেধা তালিকা/কোটার মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত আবেদনকারীদের ভর্তি সম্পর্কিত তথ্য

 

  • লগইনঃ মেধা তালিকা/কোটার মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত আবেদনকারীকে ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটের (www.nu.ac.bd/admissions) Applicant Login অপশনে Honours Login লিংকে গিয়ে রোল নম্বর ও পিন এন্ট্রি দিতে হবে।
  • এক্ষেত্রে আবেদনকারীর নাম, বরাদ্দকৃত বিষয় সংশ্লিষ্ট কলেজের নাম ও সঠিক অন্যান্য তথ্যসহ চূড়ান্ত ভর্তির আবেদন ফরম ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত হবে।

 

  • বিষয় পরিবর্তনের আবেদনঃ মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত কোন আবেদনকারী তার বিষয় পরিবর্তন করতে চাইলে আবেদন ফরমে বিষয় চূড়ান্ত আবেদন ফরমের প্রিন্ট পরিবর্তনের নির্দিষ্ট ঘরে Yes অপশন সিলেক্ট করতে হবে।
  • তবে কোটা/ রিলিজ স্লিপের মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত আবেদনকারীদের বিষয় পরিবর্তনের কোন সুযোগ থাকবে না।

 

  • চূড়ান্ত ভর্তি ফরমের প্রিন্টঃ সঠিক তথ্যপূর্ণ ভর্তির আবেদন ফরমটি Submit Application অপশনে ক্লিক করলে ভর্তির চূড়ান্ত আবেদন ফরম ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত হবে।
  • ফরমটি ডাউনলোড করে দুই কপি A4 (8.5”×11”) অফসেট কাগজে প্রিন্ট নিতে হবে।
  • পরবর্তীতে রোল নম্বর ও পিন কোড দিয়ে একাধিকবার ফরমটি প্রিন্ট নেয়া যাবে।

 

  • সংশ্লিষ্ট কলেজ চূড়ান্ত আবেদন ফরম জমাঃ সংশ্লিষ্ট কলেজে চূড়ান্ত ভর্তি আবেদনকারীকে চূড়ান্ত ভর্তি ফরমের প্রিন্ট/পিডিএফ কপি সংরক্ষণ করতে হবে এবং রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ ফরম জমা ৪৮৫/- (চারশত পঁচাশি) টাকা সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃক নির্ধারিত মোবাইল ব্যাকিং এর মাধ্যমে জমা দিতে হবে। সংশ্লিষ্ট কলেজ যে সকল চূড়ান্ত আবেদন ফরম অনলাইনে নিশ্চয়ন করবে সে সকল আবেদনকারী তাদের মোবাইল নম্বরে SMS এর মাধ্যমে তা জানতে পারবে।

 

  • বিষয় পরিবর্তনের ফলাফল ও করণীয়ঃ সংশ্লিষ্ট কলেজে বিষয়ভিত্তিক আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে ও মেধা স্কোরের ভিত্তিতে আবেদনকারীকে তার বিষয় পছন্দক্রম অনুযায়ী বিষয় পরিবর্তন করে দেয়া হবে এবং ভর্তি সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট ও SMS এর মাধ্যমে তা আবেদনকারীকে জানানো হবে। আবেদনকারীর বিষয় পরিবর্তন হলে ওয়েবসাইট থেকে একই প্রক্রিয়ায় বিষয় পরিবর্তনের ফরম সংগ্রহ করতে হবে।
  • উল্লেখ্য যে, কোন আবেদনকারীর বিষয় পরিবর্তন হলে তার পূর্বের বিষয়ের ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে এবং পরিবর্তিত বিষয়ে তার ভর্তি নিশ্চিত হবে।
  • তবে কোন আবেদনকারীর বিষয় পরিবর্তন না হলে তার পূর্বের বিষয়ে ভর্তি বহাল থাকবে
  • বিষয় পরিবর্তনের ক্ষেত্রে আবেদনকারীকে কোন ফি প্রদান করতে হবে না।

 

  • কোটার ফলাফলঃ রিলিজ স্লিপের ফরম পূরণের পূর্বে কোটার মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে। যে সকল আবেদনকারী ইতোমধ্যে মেধা তালিকায় স্থান পেয়ে ভর্তি হয়েছে এবং একই সংগে কোটায় নতুন বিষয় বরাদ্দ পেয়েছে সে সকল আবেদনকারী কোটায় বরাদ্দকৃত বিষয়ে ভর্তি হলে তাদের পূর্বের ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে।

 

  • ভর্তি নিশ্চয়নঃ সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃক অনলাইনে মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত আবেদনকারীর ভর্তি নিশ্চয়ন/বিষয় পরিবর্তন হলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে আবেদনকারীকে SMS এর মাধ্যমে তা জানিয়ে দেয়া হবে। এছাড়াও প্রার্থী অনলাইনে Applicant Login অপশন থেকে তা জানতে পারবে।

 

  • দ্বৈত ভর্তি বাতিল সম্পর্কিত জ্ঞাতব্যঃ ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রমে মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত কোন শিক্ষার্থীর ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান), স্নাতক (সম্মান) প্রফেশনাল ও স্নাতক (পাস) নিয়মিত / প্রাইভেট কোর্সে ভর্তির পর রেজিস্ট্রেশন কার্ড ইস্যু হয়ে থাকলে তাকে অবশ্যই পূর্ববর্তী শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বাতিল করে এ শিক্ষা কার্যক্রমে ভর্তি হতে হবে।
  • উল্লেখ্য যে, ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত কোন শিক্ষার্থী ভর্তি বাতিল করলে ভর্তি কার্যক্রম চলমান থাকা অবস্থায় তা পুন:বহাল করার কোন সুযোগ থাকবে না।

 

আরও পড়ুনঃ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বাতিল পদ্ধতি।

 

  • রিলিজ স্লিপে আবেদন করার শর্তাবলী ও ফরম পূরণ সম্পর্কিত জ্ঞাতব্যঃ
  • যে সকল আবেদনকারী মেধা তালিকায় স্থান পাবে না, ভর্তি বাতিল করবে অথবা মেধা তালিকায় স্থান পেয়েও বরাদ্দকৃত বিষয়ে ভর্তি হবে না, সে সকল আবেদনকারী বিষয়ভিত্তিক শূন্য আসন সাপেক্ষে পাঁচটি কলেজে আলাদাভাবে বিষয় পছন্দক্রম নির্ধারণ করে রিলিজ স্লিপের জন্য আবেদন করতে পারবে। কলেজ কর্তৃক যে সকল আবেদনকারীর প্রাথমিক আবেদন নিশ্চয়ন করা হবে না, সে সকল আবেদনকারী রিলিজ স্লিপে আবেদন করতে পারবে না।

 

  • লগিনঃ রিলিজ স্লিপে আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটের (www.nu.ac.bd/admissions) Applicant Le অপশনে Honours Login লিংকে গিয়ে সঠিক রোল নম্বর ও পিন এন্ট্রি দিতে হবে। এক্ষেত্রে আবেদনকারীর নাম ও অন্যান্য তথ্যসহ রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত হবে।
  • কলেজ ও বিষয় পছন্দক্রম নির্ধারণঃ রিলিজ স্লিপে আবেদনের জন্য College Selection Option এ গিয়ে আবেদনকারী তার পছন্দ অনুযায়ী কলেজ Select করলে ঐ কলেজের বিষয়ভিত্তিক শূন্য আসনের তালিকা ও তার Eligible বিষয়ের তালিকা দেখতে পাবে। এ পর্যায়ে আবেদনকারী তার Eligible বিষয়ের তালিকা থেকে নতুন করে পছন্দক্রম নির্ধারণ করে এন্ট্রি দিবে। এভাবে একজন আবেদনকারী তার পছন্দ অনুযায়ী মোট পাঁচটি কলেজে পর্যায়ক্রমে বিষয় পছন্দক্রম নির্ধারণ করে রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম পূরণ করবে।

 

  • রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম চূড়ান্তকরণঃ সঠিক তথ্যসহকারে ফরম পূরণ করে Submit Application অপশনে ক্লিক করলে আবেদনকারী তার নাম, প্রাথমিক আবেদনের রোল নম্বর কলেজের নাম ও বিষয় পছন্দক্রমসহ একটি নতুন আবেদন ফরম ওয়েবসাইটে দেখতে পাবে। উক্ত ফরমটি Download করে A4 (8.5×11”) অফসেট সাদা কাগজে প্রিন্ট / pdf কপি সংগ্রহ করতে হবে তবে এটি আবেদন ফরমে উল্লিখিত কলেজসমূহে জমা দিতে হবে না বা কোন ফি প্রদান করতে হবে না ।

 

  • রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম বাতিলকরণঃ রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম চূড়ান্তকরণের পরেও কোন আবেদনকারী তার আবেদন ফরমে কলেজ/বিষয়ের পছন্দক্রম সংশোধন বা পরিবর্তন করতে ইচ্ছুক হলে তাকে Applicant Login অপশনে Honours Login লিংকে গিয়ে সঠিক রোল নম্বর ও পিন এন্ট্রি দিতে হবে। এ পর্যায়ে আবেদনকারীকে Cancel Release Slip অপশনে গিয়ে Click to Generate the Security key ক্লিক করতে হবে। এ সময়ে আবেদনকারী তার আবেদন ফরমে উল্লিখিত ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে SMS এর মাধ্যমে One Time Password (OTP) পাবে। এই OTP এন্ট্রি দিয়ে আবেদনকারী তার আবেদন ফরমটি বাতিলপূর্বক নতুন করে রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম পূরণ করতে পারবে। আবেদনকারী এ সুযোগ কেবল একবারই পাবে।

 

  • রিলিজ স্লিপের ফলাফলঃ রিলিজ স্লিপের ফলাফল নির্ধারিত সময়ে প্রকাশ করা হবে। রিলিজ স্লিপের মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বিষয় পরিবর্তনের কোন সুযোগ থাকবে না।
  • রিলিজ স্লিপের ভর্তি ফরম সংগ্রহঃ  আবেদনকারী রিলিজ স্লিপের মাধ্যমে তার নির্বাচিত কলেজে বিষয় বরাদ্দ পেলে ওয়েবসাইটের (www.nu.ac.bd/admissions) Honours Applicant’s Login অপশনে গিয়ে ভর্তির আবেদন ফরম প্রিন্ট/pdf কপি সংগ্রহ করবে। এছাড়া আবেদনকারীকে রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ ৪৮৫/- (চারশত পঁচাশি) টাকা সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃক নির্ধারিত মোবাইল ব্যাকিং এর মাধ্যমে জমা দিতে হবে। সংশ্লিষ্ট কলেজ যে সকল শিক্ষার্থীর রিলিজ স্লিপের চূড়ান্ত ভর্তি অনলাইনে নিশ্চয়ন করবে সে সকল শিক্ষার্থীকে SMS এর মাধ্যমে তা জানিয়ে দেয়া হবে।

 

About Nazmul Hasan

Hi! I'm Nazmul Hasan. I'm Student of Under National University of Govt. B. L. College,Khulna, Department of Political Science....

Check Also

অনার্স ৩য় বর্ষের অঙ্গীকারনামা ও প্রমোশনের শর্ত

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ৩য় বর্ষে প্রমোশন প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অঙ্গীকারনামা নিম্নোক্ত পদ্ধতিতে পূরণ করে কলেজে জমা …

অনার্স ২য় বর্ষ থেকে অনার্স ৩য় বর্ষে প্রমোশনের শর্তসমূহ

২০২০ সালের অনার্স ২য় বর্ষের পরীক্ষার্থীদের শর্ত সাপেক্ষে ৩য় বর্ষে প্রমোশন সংক্রান্ত জরুরি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ …

103.113.200.28/student covidinfo/

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সকল কলেজ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত সকল শিক্ষার্থী যাদের ১৮ বা ১৮ বছরের …

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ভ্যাক্সিন নিবন্ধনের নির্দেশ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীকে ভ্যাক্সিনের জন্য নিবন্ধনের নির্দেশ। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সকল …

অনার্স ২য় বর্ষের শর্ত সাপেক্ষে ৩য় বর্ষে প্রমোশন

অনার্স ২য় বর্ষের স্টুডেন্টদের শর্ত সাপেক্ষে ৩য় বর্ষে প্রমোশন দেয়া হলো। ১৮-১৯ নিয়মিত, ১৭-১৮,১৬-১৭, ১৫-১৬ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!