পছন্দের এলাকায় পার্টটাইম/ফুলটাইম চাকরি খুঁজে পেতে এই অ্যাপটি ইন্সটল করেএখনই আবেদন করুন

জাতীয় বিশ্ববিদ্যায়ের কলেজ ট্রান্সফার ২০২১-২০২২

জাতীয় বিশ্ববিদ্যায় কলেজ ট্রান্সফার ২০২১-২০২২। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ট্রান্সফারের নিয়মাবলী। অনেক সময় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের এক কলেজ থেকে অন্য কলেজ পরিবর্তনের প্রয়োজন হয়। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে ছাড়পত্র/কলেজ পরিবর্তনের নিয়ম প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। চলুন জেনে নেওয়া যাক নিয়মাবলি।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের টিসি (TC) – জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পরিবর্তন

 

১) সিলেক্ট করুন যে কলেজে যেতে চান;
২) ডকুমেন্ট সাবমিট করুন;
৩) কারন লিখুন;

কী কী ডকুমেন্ট দিবেন?

৩ নম্বরে যে কারন দেখাবেন তার প্রমান সাপেক্ষে নির্ধারিত ডকুমেন্ট;
বৈধ কারন ও ডকুমেন্ট সমূহ :

 

  • ক) চাকুরীরত অভিভাবক (পিতা/মাতা/স্বামী) – অন্য জেলাই বদলি হইলে, চাকুরীরত অভিভাবকের বদলীর আদেশ, যোগদানপত্র, চাকুরীর আইডি কার্ড, অভিভাকের সম্মতিপত্র আবেদনপত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হইবে। (শুধুমাত্র “সরকারি/স্বায়ত্তশাসিত/ আধা সরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত অভিভাকের জন্য প্রযোজ্য)

 

  • খ) শর্ত ২ (ক) এ উল্ল্যেখিত অভিভাকের মধ্যে পিতা/মাতা জীবিত না থাকলে/ অসমর্থ হইলে আইনানুগ অভিভাকের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হইবে।

 

  • গ) অভিভাকের মৃত্যুজনিত কারনে স্থানীয় চেয়ারম্যানের প্রত্যায়ণ পত্র, ডেথ সার্টিফিকেটের সত্যায়িত ফটোকপি আবেদন পত্রের সঙ্গে সংযুক্ত করিতে হইবে। অভিভাকের মৃত্যুজনিত কারনে অভিভাবকত্ব যার উপর অর্পিত হয়েছে তার সম্মতিপত্র, তার কর্মস্থল / বসবাসের প্রামান্য কাগজ ও জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি জমা দিতে হবে।

 

  • ঘ)স্নাতক (সম্মান) / Hon’s এ ভর্তি হওয়ার পর কোন মেয়ে শিক্ষার্থী বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হইলে সে ক্ষেত্রে বিবাহের কাবিননামা ও স্বামীর কর্মস্থল / বসবাসের ঠিকানার প্রামান্য কাগজ ও স্বামীর জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি জমা দিতে হইবে।

 

  • ঙ) হিন্দু/ বৌদ্ধ / খ্রীষ্টান ধর্মীয় অনুসারীদের ক্ষেত্রে প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা/ ইউপি চেয়ারম্যান / ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক প্রত্যায়ণপত্র, স্বামী – স্ত্রীর যৌথ ছবি ও বিয়ের দাওয়াতপত্র, স্বামী যে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত তার প্রত্যায়ণ পত্র, বসবাসের প্রামান্য কাগজ ও স্বামীর জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি জমা দিতে হবে।

 

  • চ) শিক্ষার্থী প্রতিবন্ধী হইলে সমাজকল্যাণ দপ্তরের সনদ জমা দিতে হইবে।

 

  • ছ) সংশ্লিষ্ট কলেজের বা অধিভুক্ত বিষয়ের পাঠদান স্থগিত হইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিদর্শন বিভাগ কর্তৃক প্রদত্ত স্থগিতাদেশ পত্র সংযুক্ত করতে হইবে, এবং এ ক্ষেত্রে একই জিলার মধ্যে ট্রান্সফার নেয়া যাইবে।

 

  • জ) শিক্ষার্থী তার স্থায়ী ঠিকনার নিকটবর্তী কলেজে যৌক্তিক কারনে ছাড়পত্রের জন্য আবেদন করতে পারবে। সে ক্ষেত্রে কলেজের প্রত্যায়নপত্র দেখানো যেতে পারে।

 

আবেদনের নিয়মাবলী :

 

একজন শিক্ষার্থী ফলাফল প্রকাশের দিন থেকে ৪৫ দিনের মধ্যে অনলাইনে ছাড়পত্রের জন্য প্রাথমিক আবেদন করতে পারবে। আবেদনের সাথে প্রার্থীর মোবাইল নম্বর সংযুক্ত করতে হবে। আবেদন করতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট (nu.edu.bd) এর Services মেনু তে গিয়েStudent Login এ গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন এর পদ্ধতি জানতে এই পিডিএফ ফাইলটিডাউনলোড করে নিন। রেজিস্ট্রেশন করা হয়ে গেলে ওই লিঙ্কে লগইন করতে হবে। লগইন করার পর বামদিকে Academic Services এ ক্লিক করলে Academic Services For Student এর তালিকা পাবেন। এই তালিকায় Transfer College(TC) তে ক্লিক করলে ছাড়পত্রের আবেদন ফরম পাবেন।

NU student services – services.nu.edu.bd

 

একজন শিক্ষার্থী পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের দিন থেকে পরবর্তি ৪৫ দিন পর্যন্ত অন-লাইনে ছাড়পত্রের জন্য প্রাথমিক আবেদন করতে পারবে। স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলে টিসির জন্য ছবি ১ এর ফরম পূরণ করে সোনালী সেবা পেস্লিপ নিতে হবে, প্রাথমিক আবেদন বাবাদ আবেদনকারীকে ১৪৬৳ টাকা ফিস সোনালী ব্যাংকে জমা দিতে হবে।

এরপর নিয়মিত আইডিতে লগইন করে আবেদনের সর্বশেষ স্ট্যাটাস চেক করতে হবেবে।
আবেদন গ্রহণযোগ্য(Approved) হইলে প্রার্থীকে Approval letter (ছবি ২) প্রিন্ট করে তার বর্তমান পঠিত কলেজে জমা দিতে হইবে, তার বর্তমান পঠিত কলেজ নিজেদের কলেজ একাউন্টে ঢুকে প্রার্থীর আবেদন মঞ্জুর অর্থাৎ অনাপত্তিপত্র দিলেই আবার প্রার্থীকে নিজের স্টুডেন্ট একাউন্টে যেতে হবে, এবং চুড়ান্ত টিসি অনুমোদনের জন্য নির্ধারিত ১০৪৬/- টাকার পেস্লিপ প্রিন্ট করে আবারো সোনালী ব্যাংকে জমমা দিতে হবে। (ছবি ৩) এর কিছুদিন পর প্রার্থীকে নতুন কলেজে ভর্তির অনুমোদন দিয়ে নতুন একটি লেটার দিবে। (ছবি ৪)তা প্রিন্ট করে প্রার্থী নতুন কলেজে যেয়ে ভর্তি হবে।

প্রার্থীর প্রাথমিক আবেদন যাচাই বাছাই করে এক সপ্তাহের মধ্যেই SMS এর মাধ্যমে তার আবেদন বিবেচনা যোগ্য কিনা তা জানিয়ে দেওয়া হবে। আবেদন গ্রহণযোগ্য হলে প্রার্থীকে ছাড়পত্রের ফিসহ নির্ধারিত ফরমে বিশ্ববিদ্যালয়ে চূড়ান্ত আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। চূড়ান্ত আবেদনের সাথে শুধুমাত্র ছাড়পত্র প্রদানকারী কলেজের অনাপত্তিপত্র জমা দিতে হবে। উল্লেখ্য যে, শিক্ষার গুনগত মানোন্নয়নের প্রতি লক্ষ রেখে ছাড়পত্র অনুমোদনের ক্ষেত্রে প্রার্থী যে কলেজে ভর্তি হতে ইচ্ছুক সে কলেজের প্রার্থীত বিষয়ের শিক্ষার্থী – শিক্ষক সংখ্যানুপাত Optimum সংখ্যার অনেক বেশী হলে প্রার্থীর আবেদন বিবেচনা করা হবে না।

যা জমা দিতে হইবেঃ

  • শিক্ষার্থীর রেজিষ্ট্রেশন কার্ড।
  • শিক্ষার্থীর প্রবেশপত্র।
  • শিক্ষার্থীর পরিক্ষার ফলাফলের কপি।
    উল্লেখিত কারন গুলো হতে যেটি প্রযোজ্য তার সংস্লিষ্ট ডকুমেন্টস।
  • কোর্স ফাইনাল পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু হলে ছাড়পত্র ইস্যু করা যাবে না। তাছাড়া স্নাতক (সম্মান ) শ্রেণীতে ৩য় ও ৪র্থ বর্ষে বিশেষ কারণ ছাড়া ছাড়পত্র প্রদান করা যাবে না।
  • প্রামাণ্য তথ্যে কোন জালিয়াতির প্রমাণ পাওয়া গেলে শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল বলে গন্য হবে।

About Nazmul Hasan

Hi! I'm Nazmul Hasan. I'm Student of Under National University of Govt. B. L. College,Khulna, Department of Political Science....

Check Also

অনার্স ৪র্থ বর্ষের সিজিপিএ সমস্যা ও সমাধান

জাতীয় বিশ্ববিদ্যায়ে অধীনে ভাল ফলাফল অর্জন করার উপায়

আলহামদুলিল্লাহ সন্মানের সাথে অনার্স জীবন শেষ করতে পেরেছি,ডিপার্টমেন্টে প্রতিবছরের মতো প্রথম স্হান অর্জন করতে পরেছি। …

অনার্স ৪র্থ বর্ষের সিজিপিএ সমস্যা ও সমাধান

অনার্স এবং ডিগ্রীর মধ্যে কিছু পার্থক্য

অনার্স এবং ডিগ্রীর মধ্যে কিছু পার্থক্য। অনার্স হচ্ছে স্নাতক সম্মান আর ডিগ্রি হচ্ছে শুধু স্নাতক …

অনার্স ৪র্থ বর্ষের সিজিপিএ সমস্যা ও সমাধান

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রতারণা থেকে সাবধান

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কোর্সে ফলাফল প্রকাশের পরে একটি প্রতারক চক্র সক্রিয় হয়ে ওঠে। তখন তারা …

ভর্তি বাতিলের জন্য কলেজ ফরোয়ার্ডিং লেটারের নমুনা - Pdf ফাইল

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ট্রান্সফার ২০২২

আজ ২১ এপ্রিল অনার্স ১ম বর্ষের ফলাফল প্রকাশের পর শুরু হয়ে গেল টিসির আবেদন। আবেদন …

অনার্স ৪র্থ বর্ষের সিজিপিএ সমস্যা ও সমাধান

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে মেধাবৃত্তি ও সাধারণ বৃত্তি দেবে সরকার

২০২১-২২ অর্থবছরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে অনার্স(২০১৫-১৬) পাসকৃত ৩৯৩ জনকে এবং ডিগ্রি(২০১৬-১৭) পাসকৃত ৩০৯ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !! Admin